Home / মিডিয়া নিউজ / ভালো নেই মিমি চক্রবর্তী! ভিডিও পোস্ট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ খুললেন অভিনেত্রী

ভালো নেই মিমি চক্রবর্তী! ভিডিও পোস্ট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ খুললেন অভিনেত্রী

টলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন মিমি চক্রবর্তী। নিজের অভিনয় দক্ষতার মাধ্যমে তিনি বহু মানুষের মন

জয় করে নিয়েছেন। তবে শুধুমাত্র অভিনয় নয় রাজনীতিতে বেশ দক্ষ তিনি। যাদবপুরের তৃণমূলের সাংসদ হলেন মিমি চক্রবর্তী।

কিন্তু কিছুদিন ধরে মন ভালো নেই মিমি চক্রবর্তীর। নিজের স্যোশাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে শনিবার সেই কথা জানালেন অভিনেত্রী।

এক যন্ত্রণার গল্প তুলে ধরলেন অভিনেত্রী। নাহ এ তার নিজের জীবনের গল্প নয়। অন্যদের দুঃখ কষ্ট যন্ত্রণার কথা বলেছেন অভিনেত্রী।

কাদের কষ্টের কথা বললেন অভিনেত্রী? মানসিক অবসাদে ও দুশ্চিন্তায় ভোগা মানুষের কথা তিনি নিজের ভিডিওর মাধ্যমে তুলে ধরেন।

মে মাসকে পালন করা হয় আন্তর্জাতিক মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা মাস হিসেবে। মানুষের মধ্যে মানসিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে এই ভিডিও পোস্ট করেন অভিনেত্রী। সাদা-কালো ব্যাকগ্রাউন্ডে ভিডিও শুট করেন অভিনেত্রী। এই ভিডিওতে তিনি হয়ে উঠেছেন মানসিক অবসাদে ভোগা মানুষদের প্রতিনিধি। ভিডিওতে তিনি বলেন ‘যদি বলি আমি আজ ভালো নেই, যদি বলি বিগত কয়েকদিন ধরেই ভালো নেই আমি, যদি বলি আমি কষ্টে আছি, যদি বলি আমি বিছানা থেকে উঠতে পারছি না, যদি বলি আমি প্রচন্ড দুশ্চিন্তায় আছি, তুমি কেয়ার করবে? শুনতে চাইবে আমার কথা?’ এরপরেই তিনি আরো বলেন ‘তুমি থাকবে পাশে? ক্ষণিকের সান্ত্বনা হয়ে উঠতে পারবে? পারবে আমায় শক্তি জোগাবে? নাকি শুধু বলবে এটা একটা সময় যা কেটে যাবে, বলবে সবটাই আমার বেকার ভাবনা, বলবে আমি বেশি ভাবছি। নাকি আমার পিছনে কথা বলবে? নাকি আমি তোমার সুন্দর সময় নষ্ট করলাম?’ তারপর তিনি বলেন ‘এগুলো নিয়ে ভাবুন। আর মনের মধ্যে করুণা রাখুন’।

অনেক সময় মানুষ নিজের মনের কথা কাউকে বলতে পারে না। সেক্ষেত্রে তারা একা একাই কষ্ট পায়। শারীরিক অসুস্থতার মতন তারা মানসিক অসুস্থতাকে গুরুত্ব দিতে চান না। তবে মিমি চক্রবর্তী নিজের এই ভিডিওর মাধ্যমে শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি মানসিক সুস্থতা কতটা জরুরি তার বার্তা সমাজকে দিয়েছেন।

Check Also

প্রথম বাংলাদেশী অভিনেত্রী হিসেবে অ্যাপসা’য় মনোনয়ন পেলেন বাঁধন

লাক্স তারকা অভিনেত্রী আজমেরি হক বাঁধনের বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। ক্যারিয়ারের সেরা সময় পাড় করছেন তিনি। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.