Home / মিডিয়া নিউজ / বাংলোর নাম ‘মান্নত’ রাখতে গিয়ে কালঘাম ছুটেছিল শাহরুখের! রইল সেই অজানা গল্প

বাংলোর নাম ‘মান্নত’ রাখতে গিয়ে কালঘাম ছুটেছিল শাহরুখের! রইল সেই অজানা গল্প

মুম্বাইয়ের প্রধান দ্রষ্টব্য স্থানগুলির মধ্যে যে অন্যতম মান্নত তা নিয়ে কারো মধ্যে কোনো দ্বিধা নেই।

আর মতান্তর থাকবেই বা কেন? মান্নতের বাসিন্দা যে বলিউডের ‘বাদশা’। উঁচু পাঁচিল ঘেরা ছোটখাটো

এই প্রাসাদের বাইরে থেকে শাহরুখ খান কিংবা তার পরিবারের সদস্যকে দেখা না গেলেও মান্নত

দর্শনটুকুই কম কিছু নয় ‘কিং খান’ এর অনুরাগীদের কাছে। তবে জানেন কি, প্রথম থেকেই শাহরুখের

এই বাংলোর নাম কিন্তু মোটেই মান্নত ছিল না! পুরনো সেই নাম হঠিয়ে নিজের স্বপ্নের বাংলোর এই নাম রাখেন ‘বাদশা’।

সেটা ১৯৯৭ সাল। ‘ইয়েস বস’ এর শুটিং করছেন শাহরুখ। সেই শুটিং চলাকালীন প্রথমবার ‘মান্নত’ দর্শন হয় তার। আর প্রথম দেখাতেই প্রেম। সেইদিনই মনে মনে তিনি ঠিক করে ফেলেন যে একদিন এই বাংলোটি তিনি নিজের জন্য কিনবেন। সেইসময় ওই বাংলোর মালিক ছিলেন একজন গুজরাতি। নাম ছিল নারিমান দুবাস। আর ‘মান্নত’ এর পরিচয় ছিল ‘ভিলা ভিয়েনা’ হিসেবে।

২০০১ সাল। শাহরুখ তখন খ্যাতির মধ্যগগনে। ততদিনে পেয়ে গেছেন বলিউডের ‘বাদশা’-র খেতাব। অবশেষে একদিন তিনি নিজে গিয়ে দেখা করলেন নারিমান সাহেবের সঙ্গে। দিলেন বাংলো কিনে নেওয়ার প্রস্তাব। প্রথমে একেবারেই সেই প্রস্তাবে রাজি হননি অপর পক্ষ। অবশেষে বহু চেষ্টার পর মন গিলেছিল গুজরাতি ব্যবসায়ীর। রাজি হয়েছিলেন শাহরুখকে তার সাধের বাংলোটি বিক্রি করতে।

শোনা যায়, ‘বাই খুরশেদ ভানু সঞ্জনা ট্রাস্ট’ এর তরফে এই বাংলোটি কিনেছিলেন শাহরুখ। তখনকার দিনে ১৩.৩২ কোটি টাকার বিনিময়ে ‘ভিলা ভিয়েনা’-র অধিকর্তা হয়েছিলেন ‘কিং খান’। বর্তমানে যার মূল্য প্রায় ২০০ কোটি টাকার কাছাকাছি। ওই বাংলোটি কেনার পরের ৪ বছর সম্ভবত আইনি জটিলতার কারণে নাম পাল্টাতে পারেননি শাহরুখ।

শেষ পর্যন্ত ২০০৫ সালে কাগজপত্রে সইসাবুদ করে পাকাপাকিভাবে ‘ভিলা ভিয়েনা’-র নাম বদলে হয় ‘মান্নত’।

Check Also

প্রথম বাংলাদেশী অভিনেত্রী হিসেবে অ্যাপসা’য় মনোনয়ন পেলেন বাঁধন

লাক্স তারকা অভিনেত্রী আজমেরি হক বাঁধনের বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। ক্যারিয়ারের সেরা সময় পাড় করছেন তিনি। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.