Home / মিডিয়া নিউজ / পশ্চিমবঙ্গ থেকে ‘আজীবন সম্মাননা’ পাচ্ছেন ববিতা

পশ্চিমবঙ্গ থেকে ‘আজীবন সম্মাননা’ পাচ্ছেন ববিতা

পশ্চিমবঙ্গ থেকে ‘আজীবন সম্মাননা’ পাচ্ছেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি অভিনেত্রী ববিতা। কলকাতার

টেলিসিনে সোসাইটি তাকে সম্প্রতি এ সম্মাননা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী ২ জুন কলকাতার

নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ১৭তম টেলিসিনে অ্যাওয়ার্ড। এ মঞ্চেই ববিতাকে আজীবন সম্মাননায়

ভূষিত করা হবে। অন্যদিকে,২০১৬ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ‘আজীবন সম্মাননা’ পেতে যাচ্ছেন ববিতা।

সত্যজিৎ রায়ের ‘অশনি সংকেত’ ছবিতে অভিনয় করেই দুই বাংলার দর্শকের মন জয় করে নিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নায়িকা ববিতা। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। ১৯৭৩ সালের ১৫ আগস্ট মুক্তিপ্রাপ্ত এ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেই বাংলাদেশের নায়িকাদের মধ্যে তিনি এক অন্যরকম উচ্চতায় পৌঁছে যান।

সেই সময় ভারত থেকে বিএফজে, ভারত প্রসার সমিতিসহ আরও অন্যান্য পুরস্কার লাভ করেন ববিতা। ‘অশনি সংকেত’ মুক্তির ৪৫ বছর পর নন্দিত নায়িকা ববিতাকে ভারত থেকে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করছে টেলিসিনে সোসাইটি।

‘টেলিসিনে অ্যাওয়ার্ড’র বাংলাদেশের আয়োজক প্রতিষ্ঠান ‘ভার্সেটাইল মিডিয়া’র কর্ণধার আরশাদ আদনান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বাংলাদেশ এবং ভারতের চলচ্চিত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্যই ববিতাকে এ সম্মাননা দেয়া হচ্ছে বলে জানালেন টেলিসিনে সোসাইটির জেনারেল সেক্রেটারি মৃন্ময় কাঞ্জিলাল।

ববিতা বলেন, এই আজীবন সম্মাননা তো আসলে আন্তর্জাতিক এক বিরাট স্বীকৃতি। বাংলাদেশের আয়োজক প্রতিষ্ঠান ভার্সেটাইল মিডিয়ার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ, তারা আমাকেই এবার নির্বাচিত করেছেন।

পুরস্কারটির প্রসঙ্গে যখন আমার কাছে আসে তখন সত্যজিৎ রায় এবং সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাটানো সেই সময়টা যেন বারবার চোখের সামনে চলে আসছিল। দেখতে দেখতে এতটা বছর পেরিয়ে গেছে, ভাবলেই অবাক হই। অশনি সংকেত আমাকে বিশ্বব্যাপী পরিচিত করে তুলেছিল।

আগামী ২ জুন বিকালে কলকাতার নজরুল মঞ্চে ববিতার হাতে ‘টেলিসিনে অ্যাওয়ার্ড আজীবন সম্মাননা’ তুলে দেয়া হবে।

Check Also

যে কারণে সিনেমায় এসেছিলেন হুমায়ূন ফরীদি

মঞ্চ থেকে চলচ্চিত্র অভিনয়ের সবখানে তিনি রাজত্ব করেছেন দুর্দান্ত প্রতাপে। কয়েক দশক অভিনয়ে তিনি মাতিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.