দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন সেই লুবাবা

সিমরিন লুবাবা। এই ছোট্ট বয়সেই অসংখ্য জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনে কাজ করেছে। অনন্য প্রতিভার অধিকারী

লুবাবা প্রখ্যাত মঞ্চ-টেলিভিশন অভিনেতা আবদুল কাদেরের নাতনি। তাই দাদার অনুপ্রেরণায়ই খুব অল্প

বয়স থেকেই লাইট ক্যামেরার দুনিয়ায় লুবাবা শিশুশিল্পী হিসেবে পেয়েছে ব্যাপক পরিচিতি। অভিনয়ের

পাশাপাশি গানও গাইতেন পারেন লুবাবা।তার গাওয়া বেশ কয়েকটি কভার গান ইতিমধ্যে শ্রোতারা পছন্দ করছেন।পাশাপাশি টিকটিকেও নিয়মিত নিজের উপস্থিত জানান দেন।তার আপলোড করা ভিডিওগুলো মূহুর্তে হয় ভাইরালও।

সম্প্রতি লুবাবা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে কাজ করেছেন পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের রাজস্থানের সরকারি একটি বিজ্ঞাপন চিত্রে। বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করেছেন ভাতের নির্মাতা প্রদীপ বি খাইরা।এতে লুবাবা ছাড়াও অংশ নিয়েছেন ভারতের একাধিক শিশু শিল্পীরা।

করোনা নিয়ে জনসচেতনতামূলক বিজ্ঞাপনটি এখন প্রচার হচ্ছে রাজস্থানের বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল এবং সোশ্যাল মিডিয়ায়।বিজ্ঞাপনটি প্রচার পর থেকেই নেট মাধ্যমে বেশ প্রশংসিত হচ্ছেন লুবাবা।এতে করে বিদেশের মাটিতে লুবাবার প্রশংসা দেশের জন্য সম্মানের বলে মনে করেন দেশের একাধিক বিনোদন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

এ প্রসঙ্গে শিশুশিল্পী লুবাবা বলেন, আমি টিকটকের পাশাপাশি বিভিন্ন হিন্দি গানে পারফর্ম করে ফেসবুকে আপলোড করি। মাঝে তেরি মিট্টি নামের একটি হিন্দি গানের পারফর্ম বেশ ভাইরাল হয়। সেটি প্রদীপ আংকেলের নজরে আসে। এরপর তিনি আমাকে ফেসবুকে নক করেন। আরো কিছু কাজ চেয়ে মেসেজ করেন।কাজগুলো পাঠালে তার খুব পছন্দ হয়।

লুবাবা আরও বলেন,কাজগুলো দেখে আংকেল আমাকে তামিল ছবিতে অভিনয় করার প্রস্তাব দেন।ঝুঁকিপূর্ণ দৃশ্য থাকায়,মা রাজি হননি।পরে এই বিজ্ঞাপনের প্রস্তাবে রাজি হয়ে কাজটি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *