সিনেমার পর্দায় নয়,নতুন ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে হাজির শাবনূর

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের নব্বই-পরবর্তী সফল নায়িকা শাবনূর। টানা দুই দশক ঢাকাই সিনেমার নায়িকা

হিসেবে শীর্ষস্থান ধরে রাখেন এই সুদর্শনী। একসময় সালমান শাহ-শাবনূর জুটি মানেই ছিল সুপারহিট

সিনেমা। সালমান শাহের অকাল প্রয়াণের পর রিয়াজের সঙ্গে শাবনূরের জুটিও ছিল দারুণ জনপ্রিয় ও

সফল।এছাড়া মান্না, ফেরদৌস, শাকিব খানের সঙ্গেও তার সফল সিনেমা রয়েছে। বেশ লম্বা বিরতির পর

সম্প্রতি তার সিনেমায় ফেরার খবর শোনা যাচ্ছে! এখন তিনি দেশেই আছেন। বেশ লম্বা একটা সময় পর্দা থেকে দূরেই রয়েছেন নন্দিত এই অভিনেত্রী। এবার তিনি ফিরেছেন দর্শকদের দরবারে। তবে নতুন কোনো সিনেমায় দিয়ে নয়।একটু অন্যভাবে ফিরেছেন শাবনূর। কারণ তিনি।বর্তমান বিশ্বের ব্যাপক জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব চ্যানেলও চালু করেছেন নিজের নামে এ নায়িকা।

১৪ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত নিজের ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করা ভিডিওতে শাবনূর বলেন, ‘বন্ধুরা তোমাদের সাথে থাকতে চাই, তোমাদের পাশে থাকতে চাই এবং তোমাদের ভালোবাসা পেতে চাই।

এ প্রসঙ্গে শাবনূর জানান,আমার ইউটিউব চ্যানেলে। আমার অভিনীত সিনেমাগুলো থাকবে। সিনেমার গানগুলোর নতুন করে সংগীতায়োজন করার পরিকল্পনা রয়েছে।পাশাপাশি বিভিন্ন তথ্য শেয়ার করব। বলতে পারেন, ভক্তদের আরও কাছাকাছি থাকার জন্যই ইউটিউব চ্যানেল চালু করেছি।আশা করি সবাই পাশে থাকবেন।

২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর ব্যবসায়ী অনিক মাহমুদকে বিয়ে করেন শাবনূর। তারপর থেকে অস্ট্রেলিয়া বসবাস শুরু এবং নাগরিকত্ব লাভ করেন তিনি। ২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর প্রথম পুত্রসন্তান জন্ম দেন এ নায়িকা। অনিক-শাবনূর দম্পতির প্রথম সন্তানের নাম আইজান নিহান। স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় ২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারি স্বামীকে তালাক দিয়েছেন শাবনূর। ভেঙে যায় তার আট বছরের সংসার।

নিরাপদ জীবন এবং ছেলের আইজানের উন্নত ভবিষ্যতের জন্যই অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা হয়েছেন শাবনূর। সেখানে থাকলেও শাবনূরের অন্তর জুড়ে সবসময়ই বাংলাদেশ। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের দর্শকদের কারণেই আমি শাবনূর হতে পেরেছি।নায়িকা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *