হালাল ভালোবাসা এত মধুর, জানতেন না সানা

অসহায়ের পাশে দাঁড়িয়ে ইসলামের পথে চলতে চান, এমন কথা জানিয়ে গেল অক্টোবরে ১৫ বছরের

ক্যারিয়ারের ইতি টানেন বলিউড অভিনেত্রী সানা খান। ঘোষণার মাস না গড়াতেই গত ২০ নভেম্বর

বিয়ের পিঁড়িতে বসেন সাবেক এই অভিনেত্রী। পাত্র ভারতের গুজরাটের সুরাটের বাসিন্দা মুফতি আনাস সাইয়িদ। গতকাল বিয়ের এক সপ্তাহ উদযাপন করলেন সানা।

সাতটি স্থিরচিত্র ইনস্টাগ্রামে শেয়ার দিয়ে ক্যাপশনে স্বামীর উদ্দেশে সানা লেখেন, ‘তোমাকে বিয়ের আগে আমি কখনোই ভাবতে পারিনি, হালাল ভালোবাসা এত মধুর হতে পারে। আর হালাল কাজে বরকত আছে।’ সেইসঙ্গে জানিয়ে দেন, দেখতে দেখতে তাদের বিয়ের এক সপ্তাহ পূর্ণ হলো।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিয়ের ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর সাবেক এই অভিনেত্রী ইনস্টাগ্রামে স্বামীর সঙ্গে প্রথম ছবি আপলোড দিয়ে ক্যাপশনে লেখেন, ‘আল্লাহর জন্য আমরা ভালোবেসেছি, আল্লাহর জন্য আমরা বিয়ে করেছি, আল্লাহ এই দুনিয়ায় আমাদের একসঙ্গে রাখুন এবং জান্নাতেও আমাদের পুনর্মিলন করুন।’

২০০৫ সালে ‘ইয়ে হ্যায় হাই সোসাইটি’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় সানা খানের। এরপর তিনি বলিউডে ‘হাল্লা বোল’, ‘জয় হো’, ‘ওয়াজা তুম হো’ ও ‘টয়লেট : এক প্রেম কথা’র মতো সিনেমা করেন। ক্যারিয়ারে হিন্দি, মালয়ালাম, তামিল, কন্নড় ও তেলেগু ভাষার সিনেমায় দেখা গেছে সানা খানকে। এ ছাড়া বিজ্ঞাপন ও রিয়েলিটি শোতে দেখা যায় তাঁকে। ২০১২ সালে জনপ্রিয় ও বিতর্কিত টিভি রিয়েলিটি শো বিগ বসের প্রতিযোগী ছিলেন সানা এবং চূড়ান্ত পর্বে উঠেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *